শিরোনামঃ সেলুকাস
কন্ঠঃ তৌফিক ও ফয়সাল রদ্দি
কথাঃ তৌফিক ও ফয়সাল রদ্দি
সুরঃ তৌফিক ও ফয়সাল রদ্দি
অ্যালবামঃ রাজত্ব
ব্যান্ডঃ রাজত্ব

 

 

শৈশবের রাত্রি জাগা চ্যাপ্টা গোলাপ শালিক গোনা,
মনের মাঝে রঙ্গিন সুতো নকশি কাঁথা তোমায় বোনা,
অনেক বুঝে খুঁজে অনেক শালুক তুলে তোমায় দেয়া,
তোমার চুলের গভীর কালোয় হারিয়ে আমায় দেখা।

তবু হয়নি আজ বলা ভালবাসি তোমায় বলা,
শুধু একাকী রাত্রি জাগা
আঁধার।
আজ যাযাবর, ছন্নছাড়া
আজ অসহায়, আমি তুমি হারা
আজ বিবাগী, আমার একা চলা
সময়।
সে যে কখন চলে গেল আমার কৈশোর বেলা
জীবনেরই স্বপ্নেরা উপহাসে নিছক খেলা।

শুধু পলয়ের গপ্পো শুনি,
শুধু ভাঙ্গনের কেচ্ছা কাহিনী,
আমি মানিনি আমি বিবাগী সেলুকাস।

আসবেনা জানি ফিরে সেই শৈশব,
পাব না খুঁজে ছেলেবেলা কৈশোর,
ভুলে যেতে চাই পারিনা,
আসবেনা জানি ফিরে সেই শৈশব,
পাব না খুঁজে কৈশোর,
ফিরে পেতে চাই খুঁজিনা।

 

 

শিরোনামঃ কোথাও আমার হারিয়ে যাওয়ার
রবীন্দ্রসঙ্গীত

 

 

কোথাও আমার হারিয়ে যাওয়ার নেই মানা মনে মনে।
মেলে দিলেম গানের সুরের এই ডানা মনে মনে।
তেপান্তরের পাথার পেরোই রূপ-কথার,
পথ ভুলে যাই দূর পারে সেই চুপ্‌-কথার–
পারুলবনের চম্পারে মোর হয় জানা মনে মনে।।
সূর্য যখন অস্তে পড়ে ঢুলি মেঘে মেঘে আকাশ-কুসুম তুলি।
সাত সাগরের ফেনায় ফেনায় মিশে
আমি যাই ভেসে দূর দিশে–
পরীর দেশের বন্ধ দুয়ার দিই হানা মনে মনে।

 

শিরোনাম: শুয়া উড়িলরে
কন্ঠঃ এস আই টুটুল/ ফজলুর রহমান বাবু + শফি মণ্ডল/ প্রান্তি
গীতিকারঃ শীতালং শাহ
সুরকারঃ রাম কানাই দাস
মুভিঃ ঘেটু পুত্র কমলা
পরিচালকঃ হুমায়ূন আহমেদ

 

শুয়া উড়িল উড়িল
জীবেরও জীবন, শুয়া উড়িলরে
শুয়া উড়িল উড়িল
জীবেরও জীবন, শুয়া উড়িলরে(২)

আরলাম আকানে ছিলা আনন্দিত মন
আরলাম আকানে ছিলা আনন্দিত মন
ভবে আসি পিঞ্জরাতে হইলা বন্ধন।
শুয়া উড়িল উড়িল
জীবেরও জীবন, শুয়া উড়িলরে(২)

নিদয়া নিষ্ঠুর পাখি দয়া নাই রে তোর
পাষাণ সমান হিয়া কঠিন অন্তর।
শুয়া উড়িল উড়িল
জীবেরও জীবন, শুয়া উড়িলরে(২)

পিঞ্জরায় থাকিয়া করলা প্রেমেরও সাধন
পিঞ্জরা ছাড়িয়া যাইতে না লাগে বেদন।
শুয়া উড়িল উড়িল
জীবেরও জীবন, শুয়া উড়িলরে(২)

শীতলং ফকিরে কইন দম কর সাধন
দমের ভিতর আছে পাখি করিও যতন।
শুয়া উড়িল উড়িল
জীবেরও জীবন, শুয়া উড়িলরে(২)

 

শিরোনামঃ আমায় ডুবাইলিরে আমায় ভাসাইলিরে
গীতিকারঃ জসীমউদ্দীন

উথালি পাথালি আমার বুক…আমার, মনেতে নাই সুখরে…
আমায় ডুবাইলিরে আমায় ভাসাইলিরে
অকুল দরীয়ায় বুঝি কুল নাইরে…

আমায় ডুবাইলিরে আমায় ভাসাইলিরে
অকুল দরীয়ায় বুঝি কুল নাইরে…

আমায় ডুবাইলিরে আমায় ভাসাইলিরে
অকুল দরীয়ায় বুঝি কুল নাইরে…
কুলনাই সীমা নাই অথই দরীয়ায় পানি
দিবসে নীশিথে ডাকে দিয়া হাত ছানিরে
অকুল দরীয়ায় বুঝি কুল নাইরে…
আমায় ডুবাইলিরে আমায় ভাসাইলিরে
অকুল দরীয়ায় বুঝি কুল নাইরে…

পানসা জলে সাই ভাসায়ে, সাগরেরও বানে
আমি জীবনের ভেলা ভাসাইলাম..
জীবনের ভেলা ভাসাইলাম কেউনাতাজানেরে
অকুল দরীয়ায় বুঝি কুল নাইরে…
আমায় ডুবাইলিরে আমায় ভাসাইলিরে
অকুল দরীয়ায় বুঝি কুল নাইরে…

আসমান চাহে দরিয়া পানে, দরিয়া আসমান পানে
আসমান চাহে দরিয়া পানে, দরিয়া আসমান পানে

আরে লক্ষ বছর পার হইলো
লক্ষ বছর পার হইলো কেউনাতাজানেরে
অকুল দরীয়ায় বুঝি কুল নাইরে…
আমায় ডুবাইলিরে আমায় ভাসাইলিরে
অকুল দরীয়ায় বুঝি কুল নাইরে…
কুলনাই সীমা নাই অথই দরীয়ায় পানি
দিবসে নীশিথে ডাকে দিয়া হাত ছানিরে
অকুল দরীয়ায় বুঝি কুল নাইরে…
আমায় ডুবাইলিরে আমায় ভাসাইলিরে
অকুল দরীয়ায় বুঝি কুল নাইরে…

কুল নাই…সীমা নাই…নাইরে..কুল নাই…সীমা নাই…

 

 

শিরোনামঃ চলো না হই উদাসি
কন্ঠঃ ওয়াকিল
অ্যালবামঃ Shomi ft. Project 365

 

আমার মন ও নাচায়
এ ঘর বাঁধিলো কিশোরী
প্রান ও না চায় এ ঘর বাঁধিলো কিশোরী
চলো না হই উদাসি(২)
চলো না হই উদাসি

বন্ধুর ও বাড়ির জালালী কবুতর
আমার ও বাড়ি আসে রে(২)
কত বুট মুশুরী ছিটাইয়া খাওয়াইলাম
কত বুট মুশুরী ছিটাইয়া খাওয়াইলাম
খায় আর, খায় আর, খায় আর বাক বাকুম করে লো কিশোরী।
চলো না হই উদাসি
আমার মন ও নাচায়
এ ঘর বাঁধিলো কিশোরী
প্রান ও না চায় এ ঘর বাঁধিলো কিশোরী
চলো না হই উদাসি
চলো না হই উদাসি

আঙ্গুল ও কাটিয়া কলম ও বানাইলাম,
নয়নের জল করলাম কালি রে(২)
হৃদয় ও চিড়িয়া লিখন ও লিখিয়া,
হৃদয় ও চিড়িয়া লিখন ও লিখিয়া,
পাঠাইলাম,পাঠাইলাম,পাঠাইলাম সোনা বন্ধুর নামে লো কিশোরী।
চলো না হই উদাসি
আমার মন ও নাচায়
এ ঘর বাঁধিলো কিশোরী
প্রান ও না চায় এ ঘর বাঁধিলো কিশোরী
চলো না হই উদাসি(২)
চলো না হই উদাসি

 

 

 

শিরোনামঃ শেষ গান
কন্ঠঃ জোহাদ
কথাঃ জোহাদ
ব্যান্ডঃ নেমেসিস
অ্যালবামঃ তৃতীয় যাত্রা

চাঁদের দড়ি দিয়ে বেয়ে উঠি
তারই আলো দিয়ে তোমায় খুঁজি
খুঁজতে গিয়ে আমায় আমি ভুলি
তবে তমায় পেয়ে আমি সুর তুলি

থমকে তাকিয়ে থাকি দাড়িয়ে
সুর খুঁজতে গিয়ে যাই হারিয়ে

শোনাব শেষ বারের মত এই সুর
এই ভাঙ্গা সুর দিয়ে যাব কতদূর?
থমকে তাকিয়ে থাকি দাড়িয়ে
সুর খুঁজতে গিয়ে যাই হারিয়ে

থমকে তাকিয়ে থাকি দাড়িয়ে
সুর খুঁজতে গিয়ে যাই হারিয়ে
শোনাব শেষ বারের মত এই সুর

 

 

শিরোনামঃ মনে পড়ে
কন্ঠঃ শুদ্ধ ফুয়াদ সাদি
ব্যান্ডঃ ভাইব
অ্যালবামঃ চেনা জগৎ

 

 

কালো কালো এলোমেলো, অগোছালো একরাশ চুল(২)
স্মৃতিগুলো থমকে থাকে,
আজ আকাশ মেঘে ঢাকা, মনে তার ছবি আঁকা।
মনে পড়ে এ এ এ… মনে পড়ে আ আ…(২)

কালো কালো এলোমেলো, অগোছালো একরাশ চুল(২)
স্মৃতিগুলো থমকে থাকে,
আজ আকাশ মেঘে ঢাকা, মনে তার ছবি আঁকা।
মনে পড়ে এ এ এ… মনে পড়ে আ আ…(২)

পথে যেতে এলোচুল উড়তো হাওয়ায়…
মেঘরাঙ্গা শাড়িটার আঁচল বাওয়া।
পথে যেতে এলোচুল উড়তো হাওয়ায়…
মেঘরাঙ্গা শাড়িটার আঁচল বাওয়া।

পটভূমি দিগন্তে কালো কালো মেঘ
তুমি ছিলে যেন এক ঝড়ের আবেশ।
মনে পড়ে এ এ এ… মনে পড়ে আ আ…(২)